প্রচ্ছদ

ফেঞ্চুগঞ্জে স্বামীর লিঙ্গ কেটে স্ত্রীর মৌখিক তালাক
অবিলম্বে পুরুষ নির্যাতন আইন জরুরী

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২২:২৮

অপরাধ বাণী
ফাইল ছবি

ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি:: ফেঞ্চুগঞ্জে স্বামীর মৌখিক তালাক ও পারিবারিক বিবাহের জেরে স্ত্রীর দ্বারা লিঙ্গ কর্তনের স্বীকার হয়েছেন ময়না মিয়া(৩০) নামের এক যুবক। মঙ্গলবার ভোরে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার কটাল পুর দ্বীন পুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।আহত ময়না মিয়া উপজেলার দ্বীন পুর গ্রামের আসকর আলীর ছেলে। সে বর্তমানে ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। ময়নার স্ত্রী সুলতানা বেগম(২৫) মোগলা বাজার থানার খলাগাও গ্রামের নুর ইসলামের মেয়ে। ময়নার মিয়া পরিবার ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, প্রায় ৬ বছর আগে ময়না মিয়ার সাথে সুলতানা বেগমের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে দুটি সন্তান আছে।গত কাল রাতে স্ত্রীর সাথে রাগ করে ময়না মিয়া স্ত্রী সুলতানা বেগমকে মৌখিক তালাক দেন। এই ঘটনার পর স্থানীয় মুরব্বীরা স্ত্রী সুলতানাকে আলাদা ঘরে রেখে আসেন।
ওই রাতে ভোরে স্ত্রী সুলতানা ঘুম থেকে উটে স্বামী ময়না মিয়ার ঘরে গিয়ে তার লিঙ্গ কর্তন করেন সুলতানা বেগম। এদিকে সুলতানা বেগমকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান স্থানীয় ইউপি সদস্য কুতুব উদ্দিন। এদিকে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা যায়। ফেঞ্চুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল বাসার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান জানান, লিঙ্গ কর্তনের চেষ্টার অভিযোগ পেয়েছি। অভিযুক্ত স্ত্রীকে থানায় আনা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



এ প্রতিবেদনটি .76 বার পঠিতসংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares