প্রচ্ছদ

ইরানের বিরুদ্ধে হামলার পরিকল্পনা করছে যুক্তরাষ্ট্র

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৩:২৬

অপরাধ বাণী

ইরানের বিরুদ্ধে বড় পরিসরে হামলার পরিকল্পনা করছে যুক্তরাষ্ট্র। সম্ভাব্য হামলার প্রস্তুতি নিয়ে সতর্কতার সঙ্গে এগোচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক বা সাইবার হামলার সুপারিশ ট্রাম্পের সামনে উপস্থাপন করেছেন দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তারা।পরিকল্পনায় বিকল্প হিসেবে রয়েছে ইরানের তেল স্থাপনায় বা বিল্পবী গার্ডের সম্পদে হামলা। সৌদি আরবের তেলক্ষেত্রে হামলায় ইরানের জড়িত থাকার সন্দেহে এমন পাল্টা জবাব দিতে চাইছে ট্রাম্প প্রশাসন।

সোমবার সামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে ট্রাম্পের কাছে এ ধরনের প্রস্তাব করা হয়েছে বলে বুধবার জানিয়েছে এনবিসি নিউজ। পাশাপাশি ইরানের ওপর কূটনৈতিক চাপ বাড়ানোর তৎপরতা শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

তেহরানের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দেশটি। শনিবার সৌদি রাষ্ট্রীয় খাতের প্রতিষ্ঠান আরামকো পরিচালিত দুটি তেল শোধনাগারে ড্রোন হামলা চালানো হয়। হামলার পরপর ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীরা এর দায় স্বীকার করে।সৌদি আরবের ঘনিষ্ঠ মিত্র যুক্তরাষ্ট্র ইরানকে এ হামলার জন্য দোষারোপ করে। ওইদিনই যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের কাছে ফোন করেন ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্টের সহায়তা চান যুবরাজ। সোমবার করণীয় নির্ধারণে সামরিক কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠকে বসেন ট্রাম্প। সেখানেই তার সামনে বিভিন্ন বিকল্প তুলে ধরেন সামরিক কর্মকর্তারা।মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাতে এনবিসি নিউজ জানায়, ট্রাম্প প্রশাসন ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক বা সাইবার হামলাকেই বেছে নিতে পারে। মার্কিন সামরিক পরিকল্পনাবিদরা ইতিমধ্যে ইরানের সম্ভাব্য টার্গেটের তালিকা প্রস্তুতের কাজ শুরু করেছেন।এ তালিকায় আবাদান তেল পরিশোধন কেন্দ্র এবং খার্গ দ্বীপ তেল রফতানি কেন্দ্রও রয়েছে। এ দুটি ক্ষেত্র ইরানের প্রধান তেল উৎপাদন ও বিক্রয়কেন্দ্র। যুক্তরাষ্ট্রের হামলার টার্গেট হিসেবে তালিকায় রয়েছে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকেন্দ্র, সামরিক ঘাঁটি ও বিপ্লবী গার্ডের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা।

এদিকে ইরানের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপের নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। বুধবার এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘ইরানের বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা দেয়ার জন্য অর্থমন্ত্রীকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছি।’ তবে কোন ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হবে এ ব্যাপারে কিছু জানাননি তিনি।

ইরানের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পেশ করতে যাচ্ছে সৌদি আরব : তেল স্থাপনায় হামলায় ইরানের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পেশ করতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে সৌদি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। বুধবার মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জানান, চূড়ান্ত তদন্তের ফলাফল অনুসারে বাস্তবসম্মত প্রমাণ এবং সন্ত্রাসী হামলায় অস্ত্র সরবরাহে ইরান সরকারের জড়িত থাকার প্রমাণ উপস্থাপন করতে যাচ্ছে রিয়াদ।

ইরানের জড়িত থাকার প্রমাণ নেই-জাপান : সৌদি আরবের তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলায় ইরানের সম্পৃক্ততার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী তারো কোনো। বুধবার টোকিওতে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘ইরানকে অভিযুক্ত করা যায়- এমন কোনো তথ্য সম্পর্কে আমরা অবহিত নই।



এ প্রতিবেদনটি .27 বার পঠিতসংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares